কালিঘাটে বৈঠকের পরেরদিন ফেসবুকে বিস্ফোরক সিউড়ির তৃণমূল নেতা

বেঙ্গল ওয়াচ ডেস্ক ::চব্বিশে মার্চ কালিঘাটে বীরভূম জেলার তৃণমূল নেতাদের নিয়ে সাংগাঠনিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

 

কোর কমিটি সদস্য সংখ্যা সাত থেকে বাড়িয়ে নয়জন করা হয় । তার পরেরদিনই অর্থাৎ পঁচিশে মার্চ সিউড়ির তৃণমূল নেতা অভিজিৎ মজুমদার সিধু ফেসবুকে লেখেন, “সিউড়ি মহকুমায় কোন ভূমিপুত্র যোগ্য নেতা নেই ? যাকে বীরভূম জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের কোর কমিটির মেম্বার করা যায়….” যা নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা । বিজেপি জেলা সহসভাপতি দীপক দাস বলেন, “সিউড়িতে কোনো যোগ্য তৃনমূলের নেতৃত্ব নেই প্রমাণ করে । সিউড়ির যারা তৃণমূল করে তাদের সাবেমান থাকা উচিত তাদের থেকে দাবি করা উচিত । তৃনমূলের সিউড়ির নেতৃত্বে যারা আছে তাদের প্রতিবাদ করা উচিত । কোর কমিটি সব ফালতু এগুলো চোর কমিটি ।” জেলা কংগ্রেসে সহসভাপতি চঞ্চল চ্যাটাজী বলেন, “তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পরে সিউড়ি মহকুমার কোনো নেতা জেলা কমিটি বা কোনো বড়ো জায়গায় স্থান পায় না । মেডিক্যাল কলেজ অন্যত্র চলে যায় । সিউড়ি তিমিরেই আছে । তৃনমূল নেতার থেকে প্রতিবাদ এসেছে এতে খুশি । এটা ওদের দলীয় ব্যাপার । পঞ্চায়েত ভোটের আগে তৃণমূল চাপে আছে । তৃনমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব যে বিভিন্নপ্রান্তে উঁকি দিয়েছে এটার দ্বারা স্পষ্ট বুঝতে পারছি ‌”

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *