হলদিয়ায় আবার জয় পেলো বাম-কংগ্রেসের জোট

বেঙ্গল ওয়াচ ডেস্ক ::পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক পরিস্থিতি যেন পরিবর্তন হতে চলেছে।সাগরদীঘি ও তার আগে ও পরের বেশ কয়েকটা ছোট নির্বাচনে এই জোট জয় পেয়েছে। শুক্রবার টানটান উত্তেজনার মধ্যে হলদিয়া বন্দরের ডক ইন্সটিটিউটের পরিচালন কমিটির নির্বাচন হয়েছিল। রাজ্য পুলিশ ও সিআইএসএফের ঘেরাটোপে ভোট দেন বন্দরের স্থায়ী শ্রমিক,কর্মচারী ও আধিকারিকরা। নন্দকুমার, মহিষাদল, এগরা সমবায় মডেলের পর সাগরদিঘি উপনির্বাচন পরবর্তী হলদিয়া শিল্পাঞ্চলে ‘প্রগতিশীল’ জোটের জয় জয়কার। দৌড়ে দম হারালো তৃণমূল ও বিজেপি। হলদিয়া বন্দর পরিচালন কমিটি ফের সিআইটিইউ-র দখলে,খাতাই খুলতে পারলো না তৃণমূল-বিজেপি। এই ছোট নির্বাচনের ফলাফল কি কোনো ইঙ্গিত দিচ্ছে? তা নিয়ে অবশ্য দুই শিবিরের দুই মত।

 

এই বন্দরের নির্বাচনে এবার তৃণমূল,বাম ও কংগ্রেস জোট এবং বিজেপির ত্রিমুখী লড়াই ছিল। মোট ভোটার সংখ্যা ৭৩৭ জন হলেও, এদিন ভোট দেন ৬৯৪ জন। এবার মূলত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছিল তৃণমূল ও বাম-কংগ্রেস জোটের। তবে শেষ হাসি হেসেছে জোট। অন্যদিকে, ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘ বা বিএমএস অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই চালাচ্ছে বন্দরের নির্বাচনে। বিজেপির কোনও শ্রমিক সংগঠন না থাকায় আরএসএসের এই শ্রমিক সংগঠনই বন্দর সহ শিল্পাঞ্চলে বিজেপির মুখরক্ষা করছে। তিনটি প্যানেলে মোট প্রার্থী সংখ্যা ৫৮জন। প্রতিটি
প্যানেলে ১৮জন পরিচালন কমিটির সদস্য ও সহ সভাপতি মিলিয়ে মোট ১৯ করে প্রার্থী ছিলেন । এছাড়া একজন নির্দল প্রার্থী ভোটে একা লড়াই করছেন। শনিবার ফল গণনার প্রথম থেকেই বাম-কংগ্রেসের এগিয়ে থাকার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল। শেষে বিরোধীদের হারিয়ে ১৯ জন জোট প্রার্থী জয়লাভ করে। চলতি বছরেই হলদিয়া পুরসভা নির্বাচন। পুর নির্বাচনের আগে এই ফলাফল গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। উল্লেখযোগ্য প্রতি দু’বছর অন্তর এই নির্বাচন হয়। গতবার পরিচালন কমিটির সব আসনে তৃণমূল জয়ী হলেও সহ সভাপতি পদে জয়ী হয়েছিল বামেরাই। এবার সবই জোটের পক্ষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *