ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে এবার চলুন আয়ুর্বেদিক জগতে

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : কিছুতেই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আসছে না। অনেক সময় ব্লাড সুগারের ওষুধ বা ইনসুলিন ইনজেকশনও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না, এমন পরিস্থিতিতে কিছু আয়ুর্বেদিক পাতার রস কিন্তু ম্যাজিকের মতো রক্তে ইনসুলিনের ঘাটতি পূরণ করে। রক্তে উচ্চ শর্করা মানে আপনি হাইপারগ্লাইসেমিয়ায় ভুগছেন। আপনার ব্লাড সুগার যদি ২০০ থেকে ৩০০ mg/dL এর মধ্যে থাকে, তাহলে বুঝবেন এটা বিপদের সংকেত। ওষুধ খাওয়ার পরও যদি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে না থাকে, তাহলে কিছু আয়ুর্বেদিক পাতা চিবিয়ে নিন বা এর রস খাওয়া শুরু করুন। আর হাতেনাতে ফল পান। মনে রাখবেন, ভারতীয় আয়ুর্বেদ হাজার হাজার বছর ধরে গবেষণা করে চলেছে বিভিন্ন রোগের ওষুধ নিয়ে। হাই সুগারের রুগীর উপর প্রয়োগ করে অসাধারণ ফলাফল পাওয়া গেছে এই তিন ভেষজে।

১) ইনসুলিন প্ল্যান্ট- কস্টাস ইগনিস, যা ইনসুলিন প্ল্যান্ট নামে বেশি পরিচিত। ডায়াবেটিসে ইনসুলিন হিসাবে কাজ করে এই পাতার রস এবং রক্তে শর্করার মাত্রা কমায় দ্রুত। এই গাছের পাতা খেলে ডায়াবেটিস রোগীদের সুগার চটপট কমে যায়।

২) গুড়মার পাতা- এই পাতাগুলি যাদের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যের কারণে টাইপ 2 ডায়াবেটিস আছে তাদের দারুণ কার্যকর। এটি অগ্ন্যাশয়ের কোষগুলিকে ফ্রি র্যাডিক্যাল দ্বারা সৃষ্ট ক্ষতি থেকে রক্ষা করে এবং ইনসুলিন নিঃসরণ বাড়ায়, যার ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা হ্রাস পায়।

৩) মিষ্টি নিম বা কারি পাতা – কারি পাতা যা মিষ্টি নিম নামেও পরিচিত খুব ভাল অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। বিশেষ পরিমানে ফ্ল্যাভোনয়েড সমৃদ্ধ। কারি পাতা প্রাকৃতিকভাবে ইনসুলিনের কাজ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *