জয়নগর জোড়া খুনে সামনে এলো বাইক রহস্য

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :জয়নগরে জোড়া খুনের রহস্য আরো ঘনীভূত হচ্ছে। ইতিমধ্যে পুলিশের কাছে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, এটা কোনো রাজনৈতিক খুব নয়, অর্থাৎ রাজনৈতিক কারণে বিরোধীরা খুন করেছে – এই তত্ত্ব এখন প্রাচীন। এরই মধ্যে সামনে আসলো বাইক দুটি। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে সইফুদ্দিন লস্কর তাঁর নতুন বাড়ি থেকে যখন মসজিদের দিকে যাচ্ছিলেন সেই সময় দু’টো বাইক তাঁর পাশ দিয়ে যায়। ২টি বাইকে মোট পাঁচজন আততায়ী বসেছিল। এখান থেকেই চালানো হয় গুলি। সেই বাইক দু’টি ইতিমধ্যেই বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। রাখা রয়েছে জয়নগর থানায়। এর মধ্যে একটি লাল রঙের বাইক। আরও একটি কালো রঙের বাইক। এই বাইকের সূত্র ধরেই সহজে পৌঁছানো যাবে খুনের কিনারায়।

খুব স্পষ্ট করেই দেখা যাচ্ছে, কালো রঙের যে বাইক রয়েছে, রহমান লস্করের নাম লেখা। অন্যদিকে লাল রঙের বাইকটির নম্বর প্লেট নেই বলে দেখা যাচ্ছে। আরটিও সূত্রে খবর, কালো রঙের বাইকটির রেজিস্ট্রেশন হয়েছে বারুইপুরে। সূত্রের খবর, কাজ সেরে পালানোর সময় এই দু’টি বাইক আবার দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল বিশ্বাসচকের কাছে। অন্য একটি বাইকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। সেখানেও এক প্রস্থ গন্ডগোল হয় বলেই জানা যাচ্ছে।
কালো এবং লাল, দু’টি বাইকের গায়েই লেগে রয়েছে কাদা, হেড লাইটের কাছে রাস্তায় পড়ে গিয়ে ঘষা লাগার চিহ্ন। সেই ছবিই ধরা পড়েছে টিভি-৯ বাংলার খবর। সূত্রের খবর, পাঁচ দুষ্কৃতীর মধ্যে বিশ্বাসচকের রাস্তা ধরেই চম্পট লাগিয়েছিল ৩ দুষ্কৃতী। ধান ক্ষেত ধরে তারা বামনগাছির দিকে যায়। বাকি দু’জন ডালিমতলার দিকে যায়। তারমধ্যেই ছিলেন সাহবুদ্দিন লস্কর। যাকে পিটিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ।এখন দেখার পুলিশ কতটা তৎপরতা দেখাতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *