পাঠান না টাইগার-থ্রি কে এগিয়ে?

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::

 

 

 

 

‘Morning shows the day ‘- এর মতো বক্স অফিসেও একটা হিসাব ধরাহয় বলি পাড়ায়। তাহলো প্রথম দিন কোনো সিনেমা কত টাকার ব্যবসা দিলো? এ দেখেই নাকি বোঝা যায় ওই ছবির বাণিজ্যক গতি। স্বাভাবিক কারণেই এবার তুলনা এসে গেছে দুই খানের মধ্যে – শাহরুখের ‘পাঠান’ ও সলমনের ‘টাইগার-থ্রি ‘।

বেশ কিছুদিন ধরেই মুম্বই ফিল্ম ইনডাস্ট্রি কাঁপিয়ে চলেছে এই দুই খান। এবার চলে এলো বাণিজ্যর নিরিখে তুলনা। শাহরুখ- সালমানের জাদু যে এখনো ফুরিয়ে যায়নি তা বারবার প্রমাণিত হয়ে যাচ্ছে তাদের মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার আয় দেখে। শাহরুখের ‘পাঠান’ এবং ‘জওয়ান’-র অসাধারণ সাফল্যের পর এবার সালমান খানের ‘টাইগার থ্রি’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে ১২ নভেম্বর অর্থাৎ দীপাবলির দিন। সিনেমাটি মাত্র একদিনে সারা বিশ্ব জুড়ে কত টাকার ব্যবসা করেছে জানলে চমকে যাবে সকলে। সলমন খানের সিনেমা সাধারণ ইদেই মুক্তি পায়। তবে এ বার প্রথা ভেঙে ‘টাইগার থ্রি’ মুক্তি পেল দীপাবলিতে। এক সপ্তাহ আগে থেকে শুরু হয়ে গিয়েছিল ছবির টিকিটের অগ্রিম বুকিং। অগ্রিম টিকিট বুকিংয়ের সৌজন্যেই সলমনের ছবির ঝুলিতে এসেছে প্রায় ১০ কোটি টাকা। ছবির টিকিটের অগ্রিম বুকিং থেকে ছবির বক্স অফিস ব্যবসার কিছুটা আভাস পাওয়া যায় তা ঠিক। তবে এই হিসাব শুধু দেশের বক্স অফিসের হিসাব। দেশ ও বিদেশ মিলিয়ে অবশ্য অন্য হিসাব।

এই ব্যাপক সাফল্য খুবই খুশি ছবি প্রযোজক, পরিচালকরা। আর খুশি ভাইজান ভক্তরা। তাই ইতিমধ্যে বলা শুরু হয়েছে, টাইগার থ্রি ’ মুক্তির আগেই হিট। তবে মুক্তির পর ২৪ ঘণ্টা পার হতেই হাতে এল বক্স অফিস রিপোর্ট। এমনিতেই দীপাবলির দিন এই ছবি মুক্তি পাওয়ায় দেশের বিভিন্ন হলের অন্দরে রীতিমতো উদ্‌যাপনে মেতে সলমন-অনুরাগীরা।
বক্স অফিসের এমন কামাল ভাইজান আশা করেছিলেন কিনা সন্দেহ আছে।

এই ছবি সারা বিশ্বজুড়ে নিয়ে এসেছে এক নতুন উন্মাদনা। খোদ আমেরিকায় টাইগার থ্রি যা ব্যবসা দিয়েছে তা ভারতের সিনেমা জগতে এক ইতিহাস। ‘টাইগার থ্রি’ সিনেমাটি টাইগার ফ্র্যাঞ্চাইসির তৃতীয় সিনেমা। প্রায় ৬ বছর পর এই গল্পের তৃতীয় পর্ব মুক্তি পেয়েছে আর তা নিয়েই এখন গোটা বিশ্বজুড়ে ভক্তদের মধ্যে রয়েছে চরম উদ্দীপনা। মনীশ শর্মা পরিচালিত এই সিনেমাতে আরো একবার টাইগার এবং জোয়ার চরিত্রে ধরা দিলেন সালমান খান এবং ক্যাটরিনা কাইফ। এই সিনেমায় ক্যাটরিনার অসামান্য অ্যাকশন প্যাক দেখলাম আমরা। সারা দেশে প্রায় পাঁচ হাজার হলে মু্ক্তি পেয়েছে যশরাজ ফিল্মস্‌ ‘স্পাই ইউনিভার্স’-এর এই ছবি। গত কয়েক বছর ধরে শুধু ব্যর্থতাই দেখেছেন সলমন। তবে ‘টাইগার থ্রি’ যেন তাঁর দীপাবলির সব থেকে বড় উপহার। সলমন খান-ক্যাটরিনা কইফ অভিনীত এই ছবি মুক্তির দিনেই ঘরে তুলেছে ৪৪.৫০ কোটি টাকা। হিন্দি ভার্সন থেকেই আয় হয়েছে ৪৩ কোটি টাকার কিছু বেশি, তবে তামিল ও তেলুগু ভার্সন থেকে প্রথম দিন আয় একেবারেই তলানিতে, মোটে ১.৫০ কোটি। প্রথম দিনে ৪০ কোটির গণ্ডি সলমনের কেরিয়ারে এই প্রথম।

আর শারুখের ‘পাঠান’ এক অন্য ইতিহাস উপহার দিয়েছিলো ভারতকে। চলতি বছরের শুরুতে বলিউ়ড পেয়েছে ‘পাঠান’-এর মতো ব্লকবাস্টার। বিশ্ব জুড়ে প্রায় ১১০০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে শাহরুখ খানের এই ছবি। ‘পাঠান’-এর সাফল্যের পর ওয়াইআরএফের প্রত্যাশাও এখন প্রায় আকাশছোঁয়া। যদিও ‘পাঠান’ এখনও অনেকটাই এগিয়ে ‘টাইগার’-এর তুলনায়। প্রথম দিনে শাহরুখ ‘পাঠান’-এর আয় হয়েছিল প্রায় ৫৫ কোটি। তবে সব সময় প্রথম দিনের ব্যবসার ভিত্তিতে সবটা বিচার করা যায় না। এমন ইতিহাস আগেও আছে যে প্রথম দিন ততটা ভালো ব্যবসা না দিলেও পরে সব হিসাব ছাপিয়ে দ্রুত এগিয়ে গিয়েছিল। দুই খানের জাদুতে কাঁপছে ভক্তরা। তাই প্রথম দিনের হিসাবে দেশে পাঠান কিছুটা এগিয়ে থাকলেও টাইগার থ্রি – সামনে এখন অনেক দিন পরে আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *