Group C-তে ৫৭ জনের চাকরি বাতিল!

বেঙ্গল ওয়াচ ডেস্ক ::ইতিমধ্যে শিক্ষক নিয়োগে ব্যাপক দুর্নীতি সামনে এসেছে!

আর এর মধ্যেই গ্রুপ সি’তে কেলেঙ্কারি হয়েছে বলে অভিযোগ। আর এরপরেই এই বিষয়ে কড়া হাইকোর্ট। গ্রুপ সি-র ৮৪২ জন চাকরিপ্রার্থীর মধ্যে ৫৭ জনের চাকরি বাতিলের নির্দেশে আদালত। আর এরপরেই নির্দেশ মেনে চাকরি বাতিলের বিজ্ঞপ্তি জারি করল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

দুপুর ১২ টার মধ্যে এই সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আর সেই নির্দেশ মেনেই এহেন কড়া পদক্ষেপ স্কুল সার্ভিস কমিশনের। যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা যায়, স্কুল সার্ভিস কমিশনের সুপারিশ ছিল না। আর সেই সুপারিশ ছাড়াই ৫৭ জন ‘গ্রুপ সি’-তে চাকরি করছেন। এই সংক্রান্ত তথ্য কলকাতা হাইকোর্টে জমা পড়ে। যা দেখে রীতিমত বিস্মিত হন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। কীভাবে সুপারিশ ছাড়া দিনের পর চাকরি করে চলল তাঁরা? এই প্রশ্ন তোলেন বিচারপতি। এমনকি শান্তিপ্রসাদ সিনহা এই বিষয়ে জড়িত রয়েছেন কিনা সে বিষয়েও জানতে চান বিচারপতি।

আর এই সংক্রান্ত শুনানি চলাকালীনই ৮৪২ জনের মধ্যে ৫৭ জনের তালিকা প্রকাশ করার নির্দেশ দেন বিচারপতি। স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয় যে আজ শনিবার ১২ টার মধ্যে এই ৫৭ জনের চাকরি বাতিল করতে হবে। আর সেই সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিও জারি করতে বলে। তাঁরা যেন স্কুলে না ঢুকতে পারে সেই নির্দেশও দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।
আর সেই নির্দেশ মেনেই ৫৭ জনের একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়। যেখানে নাম এবং রোল নম্বর সমস্ত কিছু বলা হয়েছে। এমনকি বাতিল হওয়া ৫৭ জন এই মুহূর্তে কোন স্কুলে চাকরি করছেন সেই সংক্রান্তও তালিকাও দেওয়া হয়েছে। নিয়োগ দুর্নীতিতে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসছে।

আর এর মধ্যেই খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিবারের নামও জড়িয়ে গিয়েছে। ভাইঝি বৃষ্টি মুখোপাধ্যায়ের চাকরি গিয়েছে। ২০১৬ সালের গ্রুপ সি নিয়ে যে কেলেঙ্কারি হয়েছে সেই সংক্রান্ত তালিকা প্রকাশের নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। আর তাতে ৭৮৫ জনের চাকরি বাতিল হতে চলেছে। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে সেই তালিকার ১৫৫ নাম রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইজি বৃষ্টি মুখোপাধ্যায়ের।

এছাড়াও চাকরি বাতিলের তালিকাতে উত্তর থেকে দক্ষিণ একাধিক তৃণমূল নেতার নাম সামনে এসেছে। আর এই বিতর্কের মধ্যেই বিজেপি নেতা দুলাল বরের মেয়ের নাম সামনে এসেছে। জানা জাছে, দুর্নীতিতে তাঁরও চাকরি যেতে চলেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *