LIC-র এই পলিসি আশ্চর্যজনক

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::দেশের বৃহত্তম বিমা সংস্থা। প্রতিনিটি বয়সের মানুষের জন্য শুধু একটি নয়, অনেকগুলি দুর্দান্ত পরিকল্পনা রয়েছে। এলআইসির অসবর পরপিকল্পনাগুলিও খুবই জনপ্রিয়। যেগুলি অবসর গ্রহণের পরে আর্থিক নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে চালু করা হয়েছে।

এলআইসির পরিকল্পনাগুলির মধ্য একটি হল নতুন জীবন শান্তি প্ল্যান, যা একটি একক প্রিমিয়াম পরিকল্পনা, একবার বিনিয়োগ করলে প্রতি বছর ৫০ হাজার টাকা পেনশন পেতে পারেন। এই পরিকল্পনায় এককালীন বিনিয়োগে আজীবন পেনশন পাওয়া যায়।

আগামী সময়ে বা অবসর গ্রহণের পরে কোনও ধরনের আর্থিক সমস্যায় যাতে পড়তে না হয়, তার জন্য কেউ যদি পরিকল্পনা করে থাকেন, তারঁ জন্য জীবন শান্তি কাজে লাগবে। এই পরিকল্পনা এককালীন বিনিয়োগের মাধ্যমে অবসরগ্রহণের পরে নিয়মিত পেনশনের নিশ্চয়তা দেয়। এটিতে এতত বিনিয়োগের পরে অবসর গ্রহণের পরে আজীবন পেনশন পেতে থাকবেন।

এনআইসির এই পলিসি নেওয়ার বয়সসীমা ৩০ থেকে ৭৯। এই প্ল্যানে কোনও রিস্ক কভার নেই। তারপরেও এর মধ্যে পাওয়া সুবিধাগুলো একে অনেক জনপ্রিয় করে তুলেছে। এই এলআইসি প্ল্যান কেনার জন্য দুটি বিকল্প রয়েছে। এর প্রথমটি হল একক জীবনের জন্য বিলম্বিত বার্ষিকী আর দ্বিতীয়টি হল যৌথ জীবনের জন্য বিলম্বিত বার্ষিকী।

এলআইসির নিউ জীবন শান্তি হল বার্ষিক পরিকল্পনা। এটি কেনার সঙ্গে সঙ্গে গ্রাহক পেনশনের সীমা দিন্দিষ্ট করতে পারেন। অব,রগ্রহণের পরেও আপনি স্থায়ী পেনশন পেতে পারেন। যদি কোনও ব্যক্তি ৫৫ বছর বয়সে প্ল্যানটি কেনার সময় ১১ লক্ষ টাকা জমা করে ৫ বছর রাখেন, তাহলে একক বিনিয়োগে বছরে ১,০১,৮৮০ টাকা উপার্জন করবেন। ছয় মাসের ভিত্তিতে পেনশনের পরিমাণ হবে ৪৯,৯১১ টাকা এবং প্রতিমাসে পেনশন হবে ৮,১৪৯ টাকা।

৩০ থেকে ৭৯ বছর বয়সী যে কেউ যেমন এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে পারেন, তেমনি যে কোনও সময় এই প্ল্যানটি সমর্পণ করা যেতে পারে। এখানে ন্যূনতম ১.৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হয়। বিনিয়োগের সর্বোচ্চ কোনও সীমা মেই। পলিসিধারী যদি এই সময়ের মধ্যে মারা যান, তাহলে অ্যাকাউন্টে জমা টাকা, তাঁর নমিনিকে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *