পাল্টা কুমিরকে কামড়ে নিজের প্রাণ বাঁচালেন ৫০ বছরের এক ব্যক্তি

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::

 

 

 

 

 

একেই বলে উপস্থিত বুদ্ধি। তাই বলা হয়, হাজার প্রতিকূলটার মধ্যেও বুদ্ধি হারাতে নেই। সেই বুদ্ধি ও সাহসের জোরেই নিজের জীবন ফিরও পেলো এক আস্ট্রিলিয়ান নাগরিক। ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ায়। ফিনিশ নদীর পাড়ে জমি রয়েছে কলিন ডেভেরাক্স নামক ৬০ বছরের ওই বৃদ্ধের। পাশাপাশি পশু পালনও করেন তিনি। নদীর পাড়ে যাতে গরু-ভেড়া চলে না যায়, তার জন্যই কাঁটাতারের বেড়া দিতে গিয়েছিলেন তিনি। সেই সময়ই হঠাৎ আক্রমণ করে পাড়ে ঘাপটি মেরে বসে থাকা কুমিরটি। সজোরে ডান পায়ে কামড় বসায়। বাম পা দিয়ে কুমিরটিকে লাথি মারার চেষ্টা করলেও, বিফল হন কলিন। নোনা জলে বসবাসকারী ৩.২ মিটার দীর্ঘ কুমিরটি যখন তাঁকে হিড়হিড় করে টেনে নিয়ে যাচ্ছিল জলে, সেই সময়েও তিনি প্রাণপণে চেষ্টা করছিলেন পা ছাড়ানোর। কিন্তু সব চেষ্টা তার ব্যর্থ হয়। মৃত্যু তার চোখের সামনে। তারপরেই নাটকীয়ভাবে তিনি কুমিরকে পাল্টা আক্রমন শুরু করেন।

শেষ তিনি কুমিরের চোখের উপর সোজা কামড় বসিয়ে দেন। এমনিতেই জানা যায়, কুমিরের চোখ সবচেয়ে সংবেদনশীল অঙ্গ। ওই বৃদ্ধ তা জানতেন। ওই ঘটনার কথা মনে করে কলিন বলেন, “হঠাৎ কামড়ে ধরেছিল কুমিরটা। একটা বড় কামড়, তারপরই পুতুলের মতো আমায় জলের ভিতরে টানতে শুরু করেছিল। বলতে গেলে ভুলবশতই আমার মুখের সামনে ওর চোখ চলে আসে। সঙ্গে সঙ্গে আমি চোখের পাতায় কামড়ে দিই। মোটা একটা শক্ত চামড়া ছিল ওটা, ঘেন্না হলেও আমি ছাড়িনি। এরপর কুমিরটাই ঝটকা দিয়ে আমার পা ছেড়ে দেয়। আমি সঙ্গে সঙ্গে উঠে দৌড় লাগাই। প্রায় ৪ মিটার মতো আমায় ধাওয়া করেছিল কুমিরটা। তারপর জলে ফিরে যায়।” এভাবেই নিজের জীবন ফিরে পায় সে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *