প্রয়াত প্রাক্তন সিপিআইএম সাংসদ বাসুদেব আচারিয়া

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::

 

 

 

সিপিআই(এম) কেন্দ্রীয় কমিটির প্রাক্তন সদস্য, শ্রমিক আন্দোলনের প্রাক্তন সর্বভারতীয় নেতৃত্ব, প্রাক্তন সাংসদ বাসুদেব আচারিয়া ৮১ বছর বয়সে প্রয়াত হয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুস্থতার কারণে তিনি চিকিৎসারত ছিলেন। তিনি ১৯৮০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সাংসদ ছিলেন। পরপর নয়বার তিনি বাঁকুড়া কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছিলেন।

তামিলনাড়ুর বাসিন্দা বলেও ষোলো শতকে বাংলায় বসতি স্থাপন করেন পূর্বপুরুষরা। বাসুদেব আচারিয়ার জন্ম পুরুলিয়ার বেরোতে। বাবার নাম ছিল কানাইলাল আচারিয়া এবং মায়ের নাম ছিল কনকলতা আচারিয়া। তাঁর স্ত্রীর নাম রাজলক্ষ্মী আচারিয়া। তাঁদের এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

১৯৮০ সালে স্নাতকোত্তর পাশ বাসুদেব আচারিয়া সপ্তম লোকসভায় বাঁকুড়া থেকে নির্বাচিত হন। তারপর থেকে একটানা ২০০৯ পর্যন্ত তিনি ওই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন। ২০১৪ সালে মুনমুন সেনের কাছে হেরে যান তিনি।

পুরুলিয়া জেলা কমিটির সদস্য বাসুদেব আচারিয়াকে ১৯৮১ সালে পুরুলিয়া জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য করা হয়। ১৯৮৫ সালে তাঁকে সিপিআইএম রাজ্য কমিটির সদস্য করা হয়।
লোকসভার সদস্য থাকার সময় তিনি রেলের স্ট্যান্ডিং কমিটি-সহ বিভিন্ন কমিটির সদস্য ছিলেন। ১৯৯০-৯১ সালে তিনি পাবলিক আন্ডারটেকিংস কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। তারপর থেকে বিভিন্ন সময়ে তিনি সংসদের বিভিন্ন কমিটির দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০০৪ সালে সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় লোকসভার স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পরে ১৪ তম লোকসভায় সিপিআইএমের তরফে তাঁকে সংসদীয় দলের নেতা করা হয়। ২০০৫-এ দলের ১৮ তম পার্টি কংগ্রেসে তাঁকে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য করা হয়। তিনি সেন্টার অফ ইন্ডিয়ান ট্রেড ইউনিয়নের সর্বভারতীয় সহ সভাপতি ছিলেন।

১৫ তম লোকসভায় জয়ী হওয়ার পরে তিনি সংসদে দলের নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি কৃষি বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। ডিভিসি শ্রমিক ইউনিয়ন, কোলিয়ারি মজদুর সভা, সিটুর রাজ্য ওয়ার্কিং কমিটির সদস্যও ছিলেন। বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি পুরুলিয়া জেলা সিটুর সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন তিনি।

২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে দলীয় প্রার্থীদের সঙ্গে মনোনয়ন জমা দিতে যাওয়ার সময় শাসকদলের দ্বারা আক্রান্ত হন এবং তাঁকে রক্তাক্তও হতে হয়। ২০১৮ সাল পর্যন্ত সিপিআইএম রাজ্য কমিটিতে এবং ২০২২ সাল পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন।

গত সেপ্টেম্বরে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। তবে অসুস্থ শরীর নিয়েও তিনি দলের কর্মসূচিতে হাজিরা দিয়েছেন। এদিন দুপুরে তেলেঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদের একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছেন। গত কয়েকবছর স্ত্রী ও সন্তানদের সঙ্গে হায়দরাবাদেও থাকেন। সিপিআইএম সূত্রে খবর, বাসুদেব আচারিয়ার এক মেয়ে বিদেশে থাকেন। তাঁর পৌছতে মঙ্গলবার হবে। তাই হায়দরাবাদেই বাসুদেব আচারিয়ার শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *