সুপ্রিম কোর্টে SLP দায়ের চাকুরি প্রার্থীদের

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::

 

 

 

প্রথম মেধা তালিকায় নাম থাকলেও পরবর্তী মেধা তালিকা থেকে বাদ পড়ে যায়। কাউন্সেলিং বন্ধ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ চাকরি প্রার্থীরা। মামলাকারীদের নাম কেন বাদ পড়েছে তা নিয়ে কোনও কথা বলেনি এসএসসি।

২০১৬ সালের উচ্চ মাধ্যমিক প্রাথমিকের এস এল এস টি পরীক্ষা হয়। ২০১৯ সালে অক্টোবর মাসে, মেধা তালিকা প্রকাশ করে রাজ্যের স্কুল সার্ভিস কমিশন। সেই মেধা তালিকায় অসংগতি থাকার কারণে বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে মামলা দায়ের হয়। বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য ১১ই ডিসেম্বর ২০২০ সালের মেধা তালিকা অসংগতি থাকার কারণে তা বাতিল করে স্বচ্ছ নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছিলেন।

রাজ্যে স্কুল সার্ভিস কমিশন কলকাতা হাইকোর্টের এই নির্দেশকে অমান্য করেই ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ করে। সেখানে প্রথম মেধা তালিকায় যারা ছিল তাদের নাম বাদ দিয়ে অনেকের অ্যাকাডেমিক নম্বর টেটের নম্বর ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নয় তাদের নামও সেই নতুন তালিকায় দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

ইন্টারভিউ তালিকায় অসঙ্গতির অভিযোগ জানিয়ে প্রথম প্রকাশ হওয়া মেধা তালিকাভুক্ত প্রার্থীরা বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসের দারস্থ হন। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ সালে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় সেই তালিকা বাতিল না করে স্কুল সার্ভিস কমিশনের কাছে অভিযোগ জানানোর নির্দেশ দেন মামলাকারীদের।
পরবর্তী সময়ে ডিভিশন বেঞ্চে যায় মামলা। সেখানে প্রথম মেধা তালিকাভুক্ত প্রার্থীরা জানায় এসএসসি যে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে সেখানে বেশ কিছু অসংগতি ও ত্রুটিপূর্ণ। বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দেন তালিকাভুক্ত প্রার্থীরা এসএসসির কাছে অভিযোগ জানাবে এবং কোর্টের নজরদারিতেই নিয়োগ প্রক্রিয়া চলবে। যদিও পরবর্তী সময় বেঞ্চ বদল হয়ে মামলা চলে যায়, বিচারপতি সৌমেন সেনের ডিভিশন বেঞ্চে।

বিচারপতি সৌমেন সেনের ডিভিশন বেঞ্চ প্রথম মেধাতালিকা ভুক্ত প্রার্থীদের এবং এরকম অসংখ্য মামলাকারীদের বক্তব্য না শুনে ২০২৩ সালের ৮ই আগস্ট এসএসসি প্যানেল প্রকাশের নির্দেশ দেন ।এবং চূড়ান্ত অসঙ্গতি অস্বচ্ছতা থাকলেও মামলাকারীদের বক্তব্য না শুনে ডিভিশন বেঞ্চ কাউন্সেলিং-এর নির্দেশ দেন।

মামলাকারীদের পক্ষে আইনজীবী আশিস কুমার চৌধুরী জানান, মামলাকারীরা প্রথম তালিকাভুক্ত প্রার্থী। তাঁদের নাম কেন বাদ দেওয়া হল তার কোনও সদুত্তর নেই। তিনি আরও অভিযোগ করেন, অনেক প্রার্থী যাদের অ্যাকাডেমিক মার্কস বাড়ানো হয়েছে এবং শুধু তাই নয় টেট ওয়েটেজ বাড়িয়ে প্যানেলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে । এসএসসি টেট মার্কস এর পুনঃমূল্যায়ন আগে এবং পরে ও ওয়েমার
মার্কসপ্রকাশ করতে ব্যর্থ হয়েছে এসএসসি ।
মামলাকারীদের নাম কেন বাদ পড়ল মেধা তালিকা থেকে তার সুস্পষ্ট কোন ইঙ্গিত দেয়নি এসএসসি । মামলাকারীদের বক্তব্য না শুনেই ডিভিশন বেঞ্চ এক তরফা রায় দিয়েছেন বলেও অভিযোগ আইনজীবীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *