মহাকাশে প্রতিটি ছায়াপথেই সুপারম্যাসিভ হচ্ছে ব্ল্যাকহোলগুলি

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::মহাকাশে প্রতিটি ছায়াপথেই রয়েছে ব্ল্যাকহোল। তা ক্রমশ সুপারম্যাসিভ হয়ে উঠছে। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা ব্ল্যাক হোল নিয়ে যতটা সন্দেহ করেছিলেন, তার থেকে সুপারম্যাসিভ ব্ল্যাক হোলগুলির সংখ্যা অনেক বেশি। প্রতিটি পরিচিত বড় গ্যালাক্সির কেন্দ্রেই রয়েছে ব্ল্যাক হোল।

জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ থেকে যে পর্যবেক্ষণগুলি সামনে এসেছে সক্রিয় ব্ল্যাকহোলগুলি অনেক কম সংখ্যায় সুপার ম্যাসিভ হয়ে উঠেছে বলে গবেষণাপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা মনে করছে, কিছু সুপারম্যাসিভ ব্ল্যাক হোল এত বড় হয়ে উঠছে যে, তাদের বসবাসকারী ছায়াপথগুলিতে তারা প্রভাব ফেলবে।

সাধারণত মিল্কিওয় গ্যালাক্সির কেন্দ্র বেশ শান্ত থাকে। কিন্তু মাঝে মাঝে আন্তঃনাক্ষত্রিক ডেট্রিটাসের একটি ঢেউ যখন বর্ষিত হয়, প্রায়শই অন্য গ্যালাক্সির সঙ্গে সংঘর্ষের ফলে সক্রিয় হয়ে ওঠে গ্যালাকটিক নিউক্লিয়াস। তখনই তা সুপারম্যাসিভ হতে শুরু করে।এই সংঘর্ষের ফলে গ্যালাক্সির তরঙ্গদৈর্ঘ্যে প্রচুর পরিমাণে আলো নির্গত হয়।

তখন ব্ল্যাক হোলের চারপাশে ঘূর্ণায়মান উপাদানের স্ফীতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। তারা মহাবিশ্বের আলোর সবচেয়ে উজ্জ্বল স্থায়ী উৎস বলে বিবেচিত হয়। ২০১৭ সালে লরেন্সের কানসাস বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যোতির্বিজ্ঞানী অ্যালিসন কির্কপ্যাট্রিক এবং সহকর্মীরা ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন, এই সক্রিয় ব্ল্যাকহোল বহুল সংখ্যায় খুঁজে পাওয়া যাবে।
২০০৮ সালে স্পিৎজার স্পেস টেলিস্কোপ গবেষণা করে ১৯টি ছায়াপথের প্রায় এক তৃতীয়াংশে সক্রিয় গ্যালাকটিক নিউক্লিয়াসের ইনফ্রারেড স্বাক্ষর খুঁজে পেয়েছিল। এই ছায়াপথগুলি প্রায় ১০ বিলিয়ন বছর আগে মহাজাগতিক তারা গঠনের পর তুলনামূলকভাবে উজ্জ্বল এবং বিশালাকার ছিল।

জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ স্পিৎজারের থেকে অনেক বেশি সংবেদনশীল। তাই তা বর্তমানে আরও বড় আকারের ছায়াপথ দেখতে সক্ষম। জেমস ওয়েব প্রায় ৫০০টি গ্যালাক্সি দেখেছে, তার মধ্যে সবকটিই আগের মতো। তার মধ্যে মাত্র ৬ শতাংশ সক্রিয় গ্যালাকটিক নিউক্লিয়াস রয়েছে।

ডেট্রয়েটের ওয়েন স্টেট ইউনিভার্সিটির একজন জ্যোতির্বিজ্ঞানী টোনিমা তাসনিম আনান্না বলেছেন, “আমরা আসলে গ্যালাক্সিগুলির একটি নতুন পরিসংখ্যান অনুসন্ধান করছি।” নতুন ডেটা মহাবিশ্বের গবেষণায় সুদূরপ্রসারী ফলদায়ক হবে। আমাদের ছায়াপথের থেকে নতুন ছায়াপথগুলি আন্তঃনাক্ষত্রিক ধূলিকণায় ভরা বলে মনে করছে এই পর্যবেক্ষণ।

কার্কপ্যাট্রিক বলেছেন, দ্রুত বর্ধনশীল ব্ল্যাক হোলগুলি এই দূরবর্তী ধূলিময় ছায়াপথগুলিতে লুকিয়ে আছে। গবেষকদের এখনও তাদের শনাক্ত করার প্রযুক্তিগত ক্ষমতা নেই। সুপারম্যাসিভ ব্ল্যাক হোলের ওজন কয়েক বিলিয়ন। কয়েক বিলিয়ন সূর্যকে তা অনায়াসে গ্রাস করে নিতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *