ফের মধ্যরাতে উপাচার্য নিয়োগ রাজ্যপালের

বেঙ্গল ওয়াচ নিউজ ডেস্ক ::ফের মধ্যরাতে উপাচার্য নিয়োগ করলেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। গতকাল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যা রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন রাজ্যপালের এই উপাচার্য নিয়োগ নিেয়। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বেতন না দেওয়ার কথা বলেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর সেই হুঁশিয়ারি হেলায় উড়িয়ে ফের উপাচার্য নিয়োগ করলেন রাজ্যপাল।

এবার কৃষ্ণনগরের কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্বর্তী উপাচার্য নিয়োগ করলেন তিনি। অধ্যাপক কাজল দেকে এঅন্তর্বর্তী উপাচার্য পদে নিয়োগ করেছেন রাজ্যপাল। নিয়োগ নামায় স্বাক্ষর করে তার ছবিও প্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল। কয়েকদিন আগে রাতারাতি রাজ্যের ১৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ করেছিলেন তিনি।

এবার কৃষ্ণনগরের কন্যাশ্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্বর্তী উপাচার্য নিয়োগ করলেন তিনি। অধ্যাপক কাজল দেকে এঅন্তর্বর্তী উপাচার্য পদে নিয়োগ করেছেন রাজ্যপাল। নিয়োগ নামায় স্বাক্ষর করে তার ছবিও প্রকাশ করেছেন রাজ্যপাল। কয়েকদিন আগে রাতারাতি রাজ্যের ১৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ করেছিলেন তিনি।

িশক্ষা দফতরের সঙ্গে কোনও আলোচনা না করেই রাজ্যপাল উপাচার্য নিয়োগ করে চলেছেন বলে অভিযোগ। এই নিয়ে রাজভবনের সঙ্গে রাজ্য সরকারের বিরোধ তৈরি হয়েছে। গতকাল প্রকাশ্যেই এই নিয়ে রাজ্যপালকে তীব্র আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপাল নিযুক্ত উপাচার্যদের বেতন না েদওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। এমনকী তিনি বলেছেন, রাজ্যপাল পরিচালিত বিশ্ববিদ্যালয় গুলিকে কোনও রকম আর্থিক অনুদান বা সাহায্য করা হবে না।
এমনকী রাজভবনের এই একপেশে সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ধরনায় বসার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তিনি। গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ নিয়ে তীব্র বিরোধ তৈরি হয়েছে। রাজ্যপাল এক কথায় রাজ্য সরকারের কোনও তোয়াক্কা না করেই একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ করে চলেছেন। যার জেরে আরও বেড়ে চলেছে বিরোধ।

জগদীপ ধনখড়ের মতো রাজ্যপালের সঙ্গে এখনও বিরোধ এগোয়নি রাজ্য সরকারের। তবে পঞ্চায়েকত ভোটের আবহে রীতিমতো ময়দানে নেমে রাজ্যের আইন প্রশাসন রক্ষার দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নিতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যপালকে। যাদবপুরের ব়্যাগিংয়ে ছাত্র মৃত্যুর ঘটনার পরেএও রাজ্যপাল সেখানে অন্তর্বর্তী উপাচার্য নিয়োগ করেন। এবং একের পর এক িসদ্ধান্ত নিেয় সেগুলি কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। পুরোটাই শিক্ষা দফতরের সঙ্গে আলোচনা না করেই কাজ করেছিলেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *